মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১২ জুন ২০১৯

ইতিহাস ও ঐতিহ্য


 

বাংলাদেশ টেলিভিশন ১৯৬৪ সালে পাকিস্তান টেলিভিশন কর্পোরেশন নামে যাত্রা শুরু করেছিল। শুরুতে রাজউক ভবনে (তৎকালীন ঢাকা ইমপ্রুভমেন্ট ট্রাস্টে) চার ঘন্টার জন্য এর সম্প্রচার শুরু হয়েছিল। ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা অর্জনের পর এর নামকরণ করা হয় বাংলাদেশ টেলিভিশন এবং ১৯৭২ সাল পর্যন্ত এটি কর্পোরেশন হিসেবেই পরিচালিত হয়। পরবর্তীতে তথ্য মন্ত্রণালয়ের প্রশাসনিক নিয়ন্ত্রণে এনে বিটিভি’কে অধিদপ্তরের মর্যাদা দেয়া হয়।

১৯৭৫ সালের ৯ই ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ টেলিভিশনের অফিস এবং স্টুডিওগুলো ডিআইটি ভবন থেকে রামপুরা স্থানান্তর করা হয়। রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন সরকারি সম্প্রচার প্রতিষ্ঠান হিসেবে বিটিভি’র প্রশাসনিক ও অর্থনৈতিক ব্যবস্থাপনা সরকারের নিয়ন্ত্রণাধীন।

বাংলাদেশের সামাজিক প্রেক্ষাপট বিবেচনায় বলা যায়, বিটিভি দর্শকদের আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। এই আস্থা অর্জনের পেছনে রয়েছে প্রযোজক, শিল্পী এবং সহায়ক জনশক্তির সমন্বিত প্রচেষ্টা, সৃজনশীলতা এবং তাদের আন্তরিক শ্রম।

১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় বাংলাদেশ টেলিভিশন জাতিকে উদ্বুদ্ধ করে একটি গর্বিত ভূমিকা পালন করেছিল।

নতুন যুগঃ

১৯৮০ সালে বাংলাদেশ টেলিভিশন রঙীন টেলিভিশন হিসেবে সম্প্রচার শুরু করে। তখন থেকে রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত এই গণমাধ্যম লক্ষ্য পূরণে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে। ২০০৩ সাল পযন্ত সারাদেশে বিটিভি ১৪টি সম্প্রচার কেন্দ্র স্থাপন করেছে। দেশের ভূখন্ডের প্রায় ৯৩ শতাংশ ভৌগোলিক এলাকা এখন সম্প্রচার এলাকার আওতাধীন।

অনুষ্ঠান বিনিময়ঃ

বিটিভি নিয়মিত অন্যান্য সম্প্রচার প্রতিষ্ঠানের সাথে অনুষ্ঠান ও সংবাদ বিনিময় করে থাকে ।সার্ক অডিও ভিজ্যুয়াল এক্সচেন্জ প্রোগ্রামে এর একটি গুরুত্বপূর্ণ সদস্য বিটিভি।এ অঞ্চলের অন্যান্য সম্প্রচার প্রতিষ্ঠানের সাথেও অনুষ্ঠান বিনিময় করে বাংলাদেশ টেলিভিশন ।

একটি উন্নয়নশীল ও শান্তিপ্রিয় দেশ হিসেবে বিটিভি সবসময় অন্য দেশের প্রতি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে। কয়েকটি আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠানের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য বিটিভি। ১৯৮৪ সালে এশিয়া প্যাসিফিক ব্রডকাস্টিং ইউনিয়ন-এবিইউ প্রতিষ্ঠার সময় থেকে বাংলাদেশ টেলিভিশন স্যাটেলাইট নিউজ এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রামে যোগ দেয়।

এশিয়া ভিশনঃ

এশিয়া ভিশন “এভিএন”এর সদস্য হিসেবে বাংলাদেশ টেলিভিশন প্রতিদিন সদস্য দেশগুলোর সাথে  নিউজ আইটেম বিনিময় করে থাকে। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম সংবাদ হওয়া বেশ কয়েকটি আইটেম দ্রুত ও সময়মত সদস্য দেশগুলোর সাথে বিনিময় করার কারণে বিটিভি ‍‍‍‍“এভিএন” এর কয়েকটি অ্যাওয়ার্ড লাভ করেছে।

বিটিভির বেশ কিছু সংবাদ কর্মীকে প্রশিক্ষণ দিয়েছে “এভিএন” আঞ্চলিক ও বৈশ্বিক সম্প্রচার নেটওর্য়াকের  কাছে প্রতিশ্রুতি মোতাবেক বিটিভি ২০০১ সালের ৩০ শে সেপ্টেম্বর এবিইউ’র সহযোগিতায় ডিজিটাল গ্রাউন্ড স্টেশন স্থাপন করেছে।

বিটিভির দর্শকদের চাহিদা মেটাতে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ও উৎসাহী একদল পেশাদার সাংবাদিক দিনরাত কাজ করে চলেছেন। আন্তর্জাতিক বিভিন্ন গণমাধ্যম সংশ্লিষ্ট সংগঠনে বিটিভি একটি গুরুত্বপূর্ণ সদস্য হিসেবে তালিকাভূক্ত।

 


Share with :

Facebook Facebook